অনাহারে ইথিওপিয়ায় প্রাণ গেল চার হাজারের বেশি

বাংলার সকাল ডেস্কবাংলার সকাল ডেস্ক
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০৬:১৭ PM, ২৪ নভেম্বর ২০২৩

বাংলার সকাল ডেস্কঃ যুক্তরাষ্ট্র ও জাতিসংঘের খাদ্য সহায়তা স্থগিত রাখার পর ইথিওপিয়ায় অর্ধশতাধিক মানুষ এবং প্রায় চার হাজার গবাদি পশু মারা গেছে।

দেশটির উত্তর টাইগ্রে ও আমহারা অঞ্চলে খরা ও ক্ষুধায় এ ঘটনা ঘটেছে। খবর বিবিসির।

প্রতিবেদন অনুসারে, টাইগ্রেতে দুই বছর ধরে চলা গৃহযুদ্ধ এক বছর আগে শেষ হয়েছে। যুদ্ধ ও চরম প্রাকৃতিক দুর্যোগের কারণে সেখানকার লাখ লাখ মানুষ সাহায্যের ওপর নির্ভরশীল। এই অঞ্চলের মানুষরা সবকিছু এখনো গুছিয়ে উঠতে পারেননি। পাঁচ মাসেরও বেশি সময় ধরে ব্যাপক চুরির অভিযোগে যুক্তরাষ্ট্র ও জাতিসংঘ ইথিওপিয়াকে খাদ্য সহায়তা দেওয়া স্থগিত রেখেছে। এতে দেশটিতে মানবিক সংকট আরও চরম হয়েছে।

টাইগ্রের দুর্যোগ ঝুঁকি ব্যবস্থাপনা কার্যালয়ের মতে, ৪৬ জন বাস্তুচ্যুত মানুষ ইতোমধ্যে খরার কারণে বাড়ি ছাড়ার পর মারা গেছে। কার্যালয়ের প্রধান গেব্রেহিওত গেব্রেগজিয়াবার বলেছেন, ইয়েচিলা নামের একটি শহরে তাদের মৃত্যু হয়েছে। অন্যদিকে ওয়াগ হেমরার পার্শ্ববর্তী আমহারা এলাকায় খরার কারণে খাদ্যসংকটে কমপক্ষে ছয়জন এবং চার হাজার গবাদি পশু মারা গেছে বলে একজন স্থানীয় কর্মকর্তা জানিয়েছেন।

আপনার মতামত লিখুন :