টাইগারদের বোলিং তোপে লণ্ডভণ্ড আফগান টপ অর্ডার

বাংলার সকাল ডেস্কবাংলার সকাল ডেস্ক
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০১:১৫ PM, ১৫ জুন ২০২৩

বাংলার সকাল ডেস্ক: আফগানিস্তানের বোলারদের তোপে দ্বিতীয় দিন সকালে অল্পেই অল আউট হয়েছে বাংলাদেশ। তবে ছেড়ে কথা বলছে না স্বাগতিকরাও। টাইগার বোলারদের তোপে অল্পেই ৩ উইকেট হারিয়েছে আফগানরা।

এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত আফগানিস্তানের সংগ্রহ তিন উইকেটে ৩৫ রান। এর আগে নিজেদের প্রথম ইনিংসে অল আউট হওয়ার আগে ৩৮২ রান করেছে বাংলাদেশ।

আফগানিস্তানের হয়ে ইনিংস উদ্বোধনে নামেন ইব্রাহিম জাদরান ও আব্দুল মালিক। শুরুতেই জীবন পান জাদরান। তার ক্যাচ তালুবন্দী করতে পারেননি লিটন দাস। তবে তার হাতেই ধরা পড়ে মাঠ ছেড়েছেন এ ওপেনার।

শরিফুল ইসলামের বলে আউট হওয়ার আগে ৬ রান করেছেন জাদরান। এরপর জোড়া আঘাত হানেন এবাদত হোসেন। আরেক অপেনার মালিককে ১৭ ও তিনে নামা রহমত শাহকে ৯ রানের বেশি করতে দেননি তিনি।

লাঞ্চ বিরতির আগে শেষ বলে উইকেট হারায় আফগানিস্তান। রহমতের বিদায়ে বেশ অস্বস্তি নিয়ে লাঞ্চ বিরতিতে গেছে দলতি। অন্যদিকে টাইগার শিবিরে বইছে স্বস্তির সুবাতাস।

এর আগে মুশফিকুর রহিম ৪১ ও মেহেদী হাসান মিরাজ ৪৩ রান নিয়ে দ্বিতীয় দিনের খেলা শুরু করেন। দুজনেরই বড় ইনিংস খেলার অভিজ্ঞতা থাকায় আজ টাইগারদের সংগ্রহ বড় হবে, এমনটাই ভেবেছিলেন সবাই। কিন্তু তা আর হলো কই!

নিজাত মাসুদের বলে ৪৭ রানে স্লিপে ধরা পড়েন মুশফিক। তার আগের ওভারেই আহমাদজাইয়ের বলে পয়েন্টে আউট হন মিরাজ। এ অলরাউন্ডার করেন ৪৮ রান। অল্প সময়ে দুজনের বিদায়ে বেশ বিপদে পড়ে টাইগাররা।

লেজের দিকের ব্যাটাররাও আজ কিছু করতে পারেননি। তাসকিন আহমেদ ২ রান করলেও খাতা খোলার আগেই ফিরেছেন তাইজুল ইসলাম। শরিফুল ৬ রানে আউট হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে শেষ হয় স্বাগতিকদের ইনিংস।

এদিন সকালে মাত্র ৭ ওভার টিকে ছিল বাংলাদেশের ব্যাটিং লাইন আপ। ৪৫ মিনিটে মাত্র ২০ রান যোগ করতে পারে টাইগাররা।

বল হাতে আফগানিস্তানের হয়ে আলো কেড়েছেন এ ম্যাচে অভিষিক্ত নিজাত মাসুদ। ইতিহাসের ২২তম বোলার হিসেবে অভিষেকের প্রথম ডেলিভারিতেই উইকেট নেয়া এ বোলার শিকার করেছেন পাঁচ উইকেট।

দ্বিতীয় আফগান বোলার হিসেবে অভিষেকে ৫ উইকেট শিকার করেছেন মাসুদ। তিনি ছাড়া ইয়ামিন আহমাদজাই দুটি এবং জহির খান, আমির হামজা ও রহমত শাহ একটি করে উইকেট শিকার করেন।

আপনার মতামত লিখুন :